April 25, 2024

TV Bangla New Agency

Just another WordPress site

রিলায়েন্স মেগা রাইটস ইস্যু, ওভারসাবস্ক্রাইব 1.1 বার

রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের মেগা 53,124 কোটি টাকার রাইটস ইস্যু সোমবার ওভারসাবস্ক্রাইব 1.1 বার, দু ‘ দিন আগে ইস্যু বন্ধের। স্টক এক্সচেঞ্জে ইস্যু সাবস্ক্রিপশনের তথ্য অনুযায়ী, রিল-এর স্বত্ব শেয়ারের জন্য প্রাপ্ত মোট দর 46.04 কোটি, 42.26 কোটি টাকার শেয়ারে ওভারশ্যুট হয়েছে 8.9 শতাংশ । বিএসই 44.85 কোটি রাইটস শেয়ারের জন্য আবেদনপত্র পেয়েছে, যেখানে এনএসই 0.57 কোটি টাকার আবেদনপত্র পেয়েছে । অ-এএসবিএ বিড পরিমাণটি দাঁড়াল 0.62 কোটি রাইটস শেয়ার (রেজিস্ট্রার-এ পেয়েছে আর-ওয়্যাক্স) । ওভারসাবস্ক্রিপশন ফিগার ইঙ্গিত দেয় যে শেয়ারহোল্ডাররা তাদের প্রাপ্য চেয়ে অনেক বেশি শেয়ারের জন্য আবেদন করেন । বিষয়টি এখনো আরো দু ‘ দিন যেতে থাকে এবং এটি একটি সুপ্রেক্ষিত ঘটনা যে, নিশ্চিত অ্যাসাইনমেন্ট নিয়ে এ ধরনের বিষয়ে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা বিনিয়োগ করে শুধু গত কয়েক দিনে । এর মানে হল চূড়ান্ত ওভার সাবস্ক্রিপশন সংখ্যা আরও উচ্চতর পর্যায়ে বেড়ে যাবে ।

কোটিপতি মুকেশ আম্বানি এবং প্রোমোটার গোষ্ঠী তাদের অধিকারের প্রাপ্য এবং এই বিষয়টির যে কোনও অগ্রাহককৃত অংশের পুরো মাত্রায় সাবস্ক্রাইব করার অঙ্গীকার করেছিল । রিল-এ খুব বেশি সংখ্যক শেয়ারহোল্ডার রয়েছেন-25.4 লক্ষ রিটেল শেয়ারহোল্ডার, ওভার 1,700 প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী–দেশীয় পাশাপাশি বিদেশি ।

সূত্র জানায়, উল্লেখযোগ্যভাবে শক্তিশালী সাবস্ক্রিপশন নম্বরগুলোতে শেয়ারহোল্ডারদের প্রতি ক্যাটাগরির উচ্চ পর্যায়ের আস্থা রয়েছে, যা কোম্পানির ভবিষ্যত এবং প্রোডিউসারের সময়েও তাদের জন্য মূল্য সৃষ্টির প্রতিশ্রুতি রয়েছে ।

রিল-এর অধিকার বিষয়ের ওভারসাবস্ক্রিপশন নম্বরও সাম্প্রতিক অতীতের অন্যান্য তুলনীয় বিষয়ের চেয়ে ভাল । ভারতী এয়ারটেল এবং ভোডাফোন আইডিয়ার রাইটস ইস্যুগুলি ওভারসাবস্ক্রাইব করে 5-8 পে শতাংশ । এদের প্রত্যেকেরই রিল-এর অধিকার বিষয়ের অর্ধেকেরও কম ছিল ।

এর আগে, রিল একটি সম্পূর্ণ নতুন ট্রেডিং ইন্সট্রুমেন্ট তৈরি করে যার মধ্যে প্রিমিয়াম গাড়ির, তারল্য এবং সুদের আকর্ষক মানের বিনিয়োগকারীদের ছিল । এই রেস ত্যাগ করার সময় কখনোই নিচে স্বকীয় সময়ে লেনদেন হয় না, যা ভারতের পুঁজিবাজারে একটি মাইলফলক । গত ২৯ মে অনলাইন লেনদেন শেষ হলে কোম্পানির শেয়ারহোল্ডারদের জন্য প্রায় 9,500 কোটি টাকার মূল্য তৈরি করেছিল রিল-রেস । তিন দশকে রিল লাইফের প্রথম অধিকারের বিষয়টি আগামী ০৩ জুন পর্যন্ত বন্ধ রাখা হয়েছে । রাইটস ইস্যুতে কোম্পানিটি 1,257 টাকায় অনুষ্ঠিত প্রতি ১৫টি শেয়ারের জন্য এক ভাগ দিচ্ছে । সোমবার 1520.45 টাকায় বন্ধ হল রিল অন বিএসই ।

কোম্পানি, ইস্যু অফারের দলিল অনুযায়ী, তার কয়েকটি বংস পরিশোধের জন্য তার মেগা রাইটস ইস্যু-এর আয় তিন-চতুর্থাংশ ব্যবহার করবে । প্রতিষ্ঠানটি বৈধ ও অন্যান্য খরচ হিসাব করার পর রাইটস ইস্যু থেকে 53,036.13 কোটি টাকা নিট আয় আশা করে । এর মধ্যে 39,755.08 কোটি টাকা bএই সময় b বলা যায়, “ঋণ পরিশোধ/সব কিছু বা নির্দিষ্ট কিছু বন্ডিংয়ের একটি অংশ কোম্পানির দ্বারা লাভবান । বাকি 13,281.05 কোটি টাকা সাধারণ কর্পোরেট কাজে ব্যবহার করা হবে । কোম্পানির মেগা 53,125 কোটি টাকা অধিকার ইস্যুতে সাবস্ক্রাইব করার জন্য শেয়ারহোল্ডারদের মাত্র ২৫ শতাংশ টাকা দিতে হবে এবং আগামী বছরের মে ও নভেম্বরে দুই কিস্তি করে ব্যালেন্স দিতে হবে বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি । শেয়ার প্রতি 1,257 টাকা, সাবস্ক্রিপশন করার সময়ে মাত্র ২৫ শতাংশ দিতে হয় । 2021-এর মে মাসে পেমেন্টের জন্য একটি অনুরূপ পরিমাণ থাকবে এবং 2021 নভেম্বর মাসে ব্যালেন্স 50 শতাংশ পরিশোধ করতে হবে বলে সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে । Bআবেদনে বলা হয়েছে, বিনিয়োগকারীদের দিতে হবে 314.25 টাকা প্রতি স্বত্ব ইকুইটি শেয়ার, যা ইস্যু মূল্যের ২৫ শতাংশ এবং ব্যালেন্স 942.75 টাকা প্রতি রাইটস ইকুইটি শেয়ারে, যা ইস্যু মূল্যের 75 শতাংশ গঠন করে, তা দিতে হবে, এক বা একাধিক পরবর্তী কলে (এস), ‘ । 2021-২০ মে-তে তাদের দিতে হবে 314.25 টাকা, আর ব্যালেন্স 628.50 টাকা দেওয়া হবে 2021 নভেম্বর মাসে ।

শেষবার রিল-এ ফান্ডের জন্য জনসমক্ষে ট্যাপ করলে 1991 সালে কনভার্টিবল ঋণপত্র ইস্যু করা হয় । পরবর্তীকালে ঋণপত্র 55 টাকায় ইকুইটি শেয়ারে রূপান্তরিত হয় ।আম্বানি গত বছর অগস্টে 2021-এর মধ্যে শূন্য থেকে ঋণ ছেঁটে ফেলার পরিকল্পনা উন্মোচন করেন । এই পরিকল্পনার অংশ হিসেবে, রিল তার ব্যবসা-বাণিজ্য জুড়ে কৌশলগত অংশীদারিত্ব সচেষ্ট হয়েছে, যখন ভারসাম্য শীট ডেভারবাসীকে লক্ষ্য করে । মার্চ ত্রৈমাসিকের শেষে রিল লাইফের বকেয়া ঋণ ছিল ৩ হাজার 36294 কোটি টাকা । এ ছাড়াও ১ হাজার 75259 কোটি টাকার হাতে নগদ ছিল, নিট ঋণের অবস্থান ১ হাজার 61035 কোটি টাকায় নিয়ে আসা হয়েছে । এর ব্যালান্স শিট ডেভারএজিং প্ল্যানের অংশ হিসেবে রিলায়েন্স তার ডিজিটাল ইউনিট, Jio প্ল্যাটফর্মগুলিতে ফেসবুক ও বেসরকারি ইকুইটি ফার্মের মতো সংখ্যালঘু পণ বিক্রি করেছে ।
এ ছাড়াও সৌদি আরামকোর সাথে কথা বলে জানা যায়, 15,000,000,000 ডলার চাওয়ার জন্য তার তেল-রাসায়নিক ব্যবসার একটি পঞ্চমাংশ বিক্রি করে তার অর্ধেক জ্বালানি খুচরা উদ্যোগ বিপি পিএলসি থেকে 7,000 কোটি টাকা ও টেলিযোগাযোগ টাওয়ার ব্যবসায় 25,200 কোটি টাকায় বিক্রি করেছে । একসঙ্গে এসব লেনদেন থেকে আয় করলে তার ফলে রিল-এর নিট ঋণ কমে যাবে ।