Latest News

রাজকীয় সম্মানে দেশে ফিরলেন ফরাসী ফুটবলাররা

SWAGATO 17/07/2018 Technology

স্পোর্টস ডেস্কঃ রবিবার রাত থেকেই বাঁধনহারা উচ্ছ্বাসে গা ভাসিয়েছিল ফ্রান্সের সাধারণ মানুষ। স্টেডিয়ামে উপস্থিত সেদেশের প্রেসিডেন্টও বাদ যাননি সেই তালিকা থেকে। সোমবার দেশের বীর যোদ্ধারা ট্রফি নিয়ে দেশে ফিরতেই যেন আরও রঙীন ফ্রান্স। প্যারিসের বিখ্যাত স্থাপত্য আইফেল টাওয়ারের নীচে তখন হাজার-হাজার মানুষের জনসমাগম। দেখে বোঝার উপায় নেই বিশ্বজয়ের দিনও দেশজুড়ে জায়গায় জায়গায় মুসলিমদের প্রতি বিদ্বেষ দেখানো হয়েছে। বিক্ষিপ্ত গোষ্ঠী সংঘর্ষে উত্তাল হয়েছে দেশের বেশ কিছু অংশ।

সে যাইহোক, তাতে পোগবা-গ্রিজম্যানদের রাজকীয় বরণে ভাঁটা পড়ল না একফোঁটাও। প্যারিসের শার্ল দ্য গলে বিমানবন্দরে প্রস্তুত ছিল রেড কার্পেট। কোচ দিদিয়ের দেশঁ এবং অধিনায়ক হুগো লরিস প্রথম সোণার ট্রফি নিয়ে পা দিলেন সেই কার্পেটে। একে একে বেরিয়ে আসলেন উমতিতি, ভারানে, পোগবা, গ্রিজম্যানরা। এরপর আইফেল টাওয়ারের শহরে হুড খোলা বাসে চেপে জনসমুদ্রে ধরা দিলেন ফ্রান্সের ফুটবলাররা। প্যারিসের সবচেয়ে জনপ্রিয় অ্যাভিনিউ চ্যাম্পস লিজেঁ'র রাস্তায় তখন তিলধারণের জায়গা নেই। ফরাসী ফুটবলারদের গন্তব্য রাষ্ট্রপতি এমানুয়েল ম্যাক্রোর লিজেঁর প্রাসাদ। পোগবাদের সম্মান জানাতে প্যারিসের আকাশে গর্জে উঠল সেদেশের বায়ু সেনার বিমান। ফুটবলারের পর কোচ হিসেবেও ট্রফি জিতে দেশঁ'র স্মৃতিতে তখন বারে বারে ফিরে আসছিল বিশ বছর আগের স্মৃতি। সেনাবাহিনীর কুচকাওয়াজের মধ্যে দিয়েই রাষ্ট্রপতির প্রাসাদে পৌঁছলেন দেশের নায়কেরা। সেখানে ইমানুয়েল ম্যাক্রোর রাজকীয় অভ্যর্থনায় চলল পোগবাদের সেলিব্রাশনের পালা, সোণার ট্রফি হাতে ফটোসেশন। মাত্র ঊনিশেই নায়ক বনে যাওয়া আপ্লুত ওয়ান্ডার বয় কিলিয়ান এমবাপের কথায়, "লক্ষ্য যা রেখেছিলাম, সেটা অর্জন করতে পেরেছি। দেশের মানুষকে খুশি করতে পেরে আনন্দ হচ্ছে।" অন্যদিকে গ্রিজম্যান জানালেন, "সত্যি বলতে ব্যক্তিগতভাবে এটাকে এখনও স্বপ্ন মনে হচ্ছে। ট্রফিটা বড্ড ভারী।"


Related Post