May 16, 2022

TV Bangla New Agency

Just another WordPress site

স্বামীকে খুন করে কড়িকাঠে ঝুলিয়ে দেওয়ার অভিযোগ স্ত্রীর বিরুদ্ধে

নিজস্ব সংবাদদাতা পূর্ব মেদিনীপুর:– পূর্ব মেদিনীপুর জেলার কোলাঘাট এর গোপালপুর গ্রামে গভীর রাতে স্বামীকে খুন করে কড়িকাঠে ঝুলিয়ে দেওয়ার অভিযোগ স্ত্রীর বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় পুলিশ এর লাঠি চার্জ পুলিশ এর গাড়ি ভাঙচুর বলে অভিযোগ। পুলিশ জনতা খন্ড যুদ্ধ ইট বৃষ্টি।রাতারাতি পুলিশকে আত্ম হত্যার খবর দিয়ে দেহ নিয়ে চলে যাওয়ায় সকালে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন গ্রামবাসীরা।পুলিশকে আটক করে ব্যাপক বিক্ষোভ। সকাল থেকে দুপুর ১২ টা প্রযন্ত আটকে রেখে বিক্ষোভ দেখাই এলাকা বাসীরা। ঘটনার খবর পেয়ে ছুটে আসে কোলাঘাট থানার পুলিশ এর বিশাল পুলিশ বাহিনী পুলিশ বিক্ষোভ তুলে নেওয়ার জন্য অনুরোধ করে। কিন্তু গ্রামবাসীরা তাদের দাবিতে অনর। শেষ পুলিশ এর সঙ্গে গ্রাম বাসি দের ধস্তা ধস্টি পরে উত্তেজিত জনতা ছত্র ভঙ্গ করতে পুলিশ এর লাঠিচার্জ পুলিশ কে লক্ষ্য করে ইট বৃষ্টি। এরে পুলিশ কয়েক জন আহত হয়েছে পুলিশ এর লাঠির আঘাত এও বেশ কয়েক্ জন আহত হয়েছে। অভিযুক্ত স্ত্রী কে বেঁধে মারধর সহ তার মাথার চুল কেটে একটি মন্দিরের মধ্যে ঢুকিয়ে গ্রীলে তালা বন্ধ করে আটকে রেখে বিক্ষোভ দেখাচ্ছে গ্রামবাসীরা। মৃতের শ্বশুর বাড়ির লোকজন দের মারধর চালায় বিক্ষোভ কারীরা। সেলফ হেলফ গ্রূপ থেকে দু-লক্ষ টাকা লোন নিয়ে ছিল গৃহবধূ।স্বামীকে মেরে টাকা ফাঁকি দিতে চাইছে। সামাল দেওয়াতো দূরস্ত,ক্ষোদ পুলিশই ঘেরাটোপে। আজ সারা রাজ্যে লকডাউন চললেও এখানে কার্যত লক ডাউন শিকেয় উঠেছে। অভিযোগ ছেলেটি বড় ভালো ছিল। ফুল ও সব্জী ব্যবসা করতো। বৌটি দজ্জ্বাল।প্রায় সময় বাড়ীতে অশান্তি চলত। বেশ কয়েক বার পাড়া প্রতিবেশী ও গ্রাম সদস্য বীজেন সামন্ত মিমাংশা করে দিয়েছে।তা সত্ত্বেও কি করে এমন হল। পুলিশ কে এমনিতে ডাকলে আসেনা, এ ক্ষেত্রে রাতারাতি কিকরে দেহ লোপাট হয়ে গেল।কেন কাউকে জানানো হল না। রাতেই সদস্যও প্রতিবেশীরা গলায় ফাঁসদিয়ে মৃত্যুর কথা জানতে পেরে ছিল। সকালে পুলিশ ডেকে বুঝবে বলে ছিল সকলে। দেহ ফের ঘরে আনতে হবে, তারপর তদন্ত শুরু করুক পুলিশ। এই নিয়ে চলছে ব্যাপক উত্তেজনা।
পূর্ব মেদিনীপুরের কোলাঘাট থানা এলাকার কাউরচণ্ডী গ্রামের ঘটনা। মৃতের নাম সুব্রত দাস। স্ত্রীর নাম সুপর্ণা দাস। সুপর্ণা জানাচ্ছেন তার স্বামী মদ্যপ অবস্থায় এসে প্রায় সময় অশান্তি করতো। মারধর করতো তাকে। গতকাল রাতে ও তাকে মারধর করে নিজে আত্ম হত্যা করেছে। রাতেই প্রতি বেশীদের বাড়ী বাড়ী গিয়ে সকলকে ডেকেছে। কেউ আসেনি। কোলাঘাট থানার পুলিশ শেষ এ মৃত ব্যাক্তির আটক স্ত্রী ও তাদের বাপের বাড়ির লোক কে উদ্ধার করে কোলাঘাট থানায় নিয়ে গিয়েছে।