October 26, 2021

TV Bangla New Agency

Just another WordPress site

স্বপ্ন ভুলে বাস্তবের মুখোমুখি কার্তিক

স্বপ্ন ছিল নিজের পায়ে দাঁড়ানোর। তাই হোটেল ম্যানেজমেন্ট করে স্বপ্ন পূরণ করতে, পাড়ি দেয় বিদেশে। অবশ্য বিদেশ যাবার পদ ছিল খুব কঠিন। বাবা দিনমজুর, বাড়িতে নুন আনতে পান্তা ফুরায়। কিন্তু স্বপ্ন ছিল বিদেশে গিয়ে অর্থ উপার্জন করে নিজের পায়ে দাঁড়ানো। তাই এলাকার থেকে চড়া সুদে টাকা ধার করে পূর্ব মেদিনীপুর পাঁশকুড়া থানার বাহারপোতা গ্রাম থেকে কার্তিক মাইতি পাড়ি দেয় বিশ্বের অর্থনৈতিক দিক থেকে উন্নত মান দেশ, আমেরিকা। হোটেল ম্যানেজমেন্ট করার পর আমেরিকায়া কার্নিভাল কুজ নামক জাহাজ সংস্থায় কুকের (রাধুনী) কাজ পায় গ্রামের ছেলে কার্তিক।

আমেরিকায় কাজ পাওয়ার পর, মনে অনেক স্বপ্ন দেখতে শুরু করে ছিল। গ্রামের ছেলে কার্তিক ভেবে ছিলো বিদেশে এসে অর্থ উপার্জন করে পরিবারের মুখে হাসি ফোটাতে সে। মনে মনে আত্মবিশ্বাস ছিল যে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করতে পারবে। দশ মাস কাজ করার পর ছুটিতে বাড়িতে এসে উপার্জন করা অর্থ দিয়ে চড়া সুদের টাকা ধার নেওয়া শোধ করে কার্তিক। বাকি অর্থ তুলে দেয় বাবার হাতে। কিন্তু আমেরিকা থেকে আসার কয়েক দিনের মধ্যেই নেমে এলো কালো মেঘ। করোনা নামক এক ভাইরাস রোগ গ্রাস করেছে গোটা পৃথিবী কে। বন্ধ হয়ে যায় সমস্ত আন্তর্জাতিক ফ্লাইট। কয়েক হাজার কোরোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর খবর আছে আমেরিকা থেকে। এর পরেই গোটা ভারতবর্ষের জুড়ে শুরু হয় লকডাউন।

জমানো অর্থ ক্রমেই শেষ হতে থাকে। এখনই কোন জায়গায় গিয়ে কাজ করা সম্ভব নয়। কারন দেশের সমস্ত রেস্তোরা, হোটেল বন্ধ। বিদেশ যাওয়া এখন বিশ পাও জলে। তাই গ্রামের সবজি বিক্রি পথ বেছে নেন কার্তিক। দীর্ঘদিন বাবার কাজ বন্ধ, অর্থনৈতিক দিক থেকে খুব সংকটে চল ছিল আমাদের পরিবার। তাই সবজি বিক্রির পথ বেছে নিয়েছি। এখান থেকে কিছু উপার্জন করতে পারলে পরিবারের মুখে হাসি ফুটবে। তাই এই পথ বেছে নিয়েছে বলে জানান গ্রামের ছেলে কার্তিক।