September 20, 2021

TV Bangla New Agency

Just another WordPress site

বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু একই পরিবারের কাকা ভাইপো, ঘটনা ঘিরে চাঞ্চল্য পূর্ব মেদিনীপুর

নিজস্ব সংবাদদাতা পূর্ব মেদিনীপুর:- বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে একই পরিবারের কাকা ও ভাইপো মৃত্যু ও দুজন গুরুতর আহত ঘটনায় যথেষ্ট চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার কোলাঘাট থানার দেড়িয়াচক অঞ্চলের সাপুয়া গ্রামের ঘটনা। জানা গেছে মৃত ব্যক্তির নাম অশিত বরণ সাহু, বয়স আনুমানিক ৫৫ বছর ও অপর জনের নাম শুভেন্দু সাহু, বয়স আনুমানিক ৩০বছর, আহত অশোক সাহু ও অপনা সাহু, পরিবার সূত্রে জানা যায়
বাড়ির সামনে পুকুর স্নান করতে নেমে ছিলেন অশিতবাবু, ঠিক সেই সময় সেই সময় পুকুরের পা ধুতে নেমে ছিল শুভেন্দু বাবু, এমন সময় পুকুরের পার দিয়ে ইলেকট্রিকের তার ছিড়ে পুকুরে পড়ে যায় ঘটনার সময় বিদ্যুৎপৃষ্ট হয় অসিত বাবু,এবং শুভেন্দু অর্থাৎ কাকা-ভাইপো দুজনেই বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়। এদের দুজনকে বাঁচাতে জলে ঝাঁপ দেয় অশোক বাবু ও অপনা দেবী। কোন ক্রমেই এলাকা বাসীরা বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে। তড়িঘড়ি শুভেন্দুকে দুজনকে প্রথমে মেচেদা এক বেসর কারি হাসপাতাল নিয়ে যায়, পরে অবস্থা আশঙ্কা জনক হওয়ায় তাদের তমলুক যাওয়ার পথে মৃত্যু ঘটে। তবে অশোক বাবু ও অপনা দেবীকে স্থানীয় নন্দাইগাজন উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়। একই পরিবারের দুই জনের মৃত্যুর ঘটনায় শোকের ছায়া গোটা সাপুয়া গ্রামে। গ্রামবাসীর অভিযোগ যে পুকুরের ২০০ মিটার দূরত্বের দুটো খুঁটি। স্থানীয় বাসিন্দাদের বক্তব্য ইলেকট্রিক দফতরের আধিকারিকদের জানিয়েও কোনো সুরাহা মিলেনি, ফলে আতঙ্কের মধ্যে থাকতে হতো এলাকাবাসীকে, কারণ যে কোন প্রকারের ছিড়ে যেতে পরে বৈদ্যুতিক তার। কিন্তু ইলেকট্রিক দপ্তর কোন সুরাহা করেননি। বুধবার তার জেরেই তরতাজা দুটো প্রাণ চলে গেল, এমনটাই অভিযোগ এলাকা বাসীর। যদি ইলেকট্রিক দপ্তর কেবিল বা ইলেকট্রিক তারের গার্ডের ব্যবস্থা করতো তাহলে আজ এই ঘটনা ঘটতো না। দ্বিতীয়তঃ রাস্তা খারাপ তার জেরে কোন গাড়ি ঢুকে না আমাদের রাস্তা। ভ্যানে করে এক এক করে নিয়ে যেতে অনেকক্ষণ সময় লেগে গিয়েছে। যদি রাস্তা ভালো থাকতো তাহলে দ্রুত এই রোগীদের নিয়ে গেলে হয়তো বেঁচে যেত তরতাজা দুটো প্রাণ। ইলেকট্রিক দপ্তরের চরম গাফিলতির অভিযোগ তুলছে এলাকা বাসী।