October 24, 2021

TV Bangla New Agency

Just another WordPress site

দীঘা সন্নিকটে 200 মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন উদ্যান প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করলেন পশ্চিমবঙ্গের বিদ্যুৎ মন্ত্রী

নিজস্ব সংবাদদাতা পূর্ব মেদিনীপুর:- রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বেশ কয়েক দিন আগে ঘোষণা অনুযায়ী বুধবার পূর্ব মেদিনীপুরের দিঘার সন্নিকটে দাদন পাত্রবাড়ে ২০০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন সৌর উদ্যান প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করলেন পশ্চিমবঙ্গের বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। জানা গিয়েছে রাজ্য বিদ্যুৎ বন্টন নিগমের অধীনে এই প্রকল্পটি গড়ে তোলা হচ্ছে। ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করে রাজ্যের বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভন দেব চট্টোপাধ্যায় জানান, প্রাথমিকভাবে ১২৫ মেগাওয়াট ক্ষমতা সম্পন্ন প্রকল্প গড়ে তোলা হবে,পরবর্তী সময়ে আরো ৭৫ মেগাওয়াট সংযুক্ত করা হবে। এই প্রকল্পের মোট খরচ ৭৫০ কোটি টাকা। যার মধ্যে জার্মানির কে এফ ডব্লিউ ব্যাংক ৬০০ কোটি টাকা ঋণ দিয়েছে। যা ১৫ বছরে নামমাত্র সুদের হারে পরিশোধ করতে হবে। যার মধ্যে প্রথম ৩ বছর কোন অর্থ দিতে হবে না। বাকি ১৫০ কোটি টাকা দিচ্ছে রাজ্য সরকার। এই প্রকল্পটির সম্পূর্ণ হতে সময় লাগবে দেড় বছর। এই প্রকল্পটি পূর্ব ভারতের সবথেকে বড় সৌর বিদ্যুৎ প্রকল্প হতে চলেছে বলেও জানান বিদ্যুৎ মন্ত্রী। পরিবেশবান্ধব এই প্রকল্পের মাধ্যমে উৎপন্ন বিদ্যুৎ গ্রিডে দেওয়া হবে বলেও জানান রাজ্যের বিদ্যুৎ মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। সেই জন্য মন্দারমণিতে পশ্চিমবঙ্গ বিদ্যুৎ সংবহন নিগম এর উদ্যোগে একটি ১৩২ কেভি সাবস্টেশন তৈরি করা হচ্ছে বলে জানান তিনি‌। অন্য দিকে আসন্ন কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় গুলিতে পরীক্ষা চলাকালীন যাতে বিদ্যুৎ পরিষেবায় কোনরকম বিঘ্ন না ঘটে সেই কারণে সংশ্লিষ্ট দায়িত্বপ্রাপ্ত অধিকর্তাদের যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন বিদ্যুৎ মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। তিনি এই প্রসঙ্গে জানান, শিক্ষামন্ত্রী পরীক্ষার সময় বিদ্যুৎ পরিষেবা স্বাভাবিক রাখার জন্য যে অ্যাডভাইজারি জারি করেছেন, সেই প্রেক্ষিতে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। তবে এই সময় প্রাক পুজো কিছু রক্ষণাবেক্ষণের কাজ চলে, সেই নিয়েও সর্তকতা অবলম্বন করা হবে।এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত এলাকার বিধায়ক অখিল গিরি বলেন রাজ্যের বিগত বাম সরকারের আমলে দিঘা সহ সারা রাজ্য দেখেছে শুধুই অনুন্নয়ন। আর রাজ্যের ক্ষমতা বদলের পরে, মুখ্যমন্ত্রীর চেয়ারে মমতা ব্যনার্জী বসার পরে মানুষ দেখেছে উন্নয়ন। দিঘার পর্যটন শিল্পের বিকাশ ঘটেছে। অন্য দিকে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে একাধিক তোপ দাগলেন, আম্ফান কার্যত তোপ দাগলেন কেন্দ্রীয় সরকারের উপর।