January 29, 2022

TV Bangla New Agency

Just another WordPress site

করোনা আক্রান্ত হরিরামপুর বিধানসভার সি পি এম-এর বিধায়ক

বালুরঘাট ; কুমারগঞ্জের তৃনমুলের বিধায়কের পর এবার দক্ষিন দিনাজপুর জেলার হরিরামপুর বিধানসভার সি পি এম এর বিধায়ক করোনা তে আক্রান্ত। গতকাল রাত্রে মালদা মেডিক্যালের ভিআরডিএলে থেকে
রিপোর্ট এলে দেখা যায় জেলায় নতুন করে ৩৩ জনের শরিরে করোনা পজিটিভ। এদের মধ্যে হরিরামপুরের বিধায়ক রফিকুল ইসলামের নামও রয়েছে। এদিনের ৩৩ জন নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮৪৬। আক্রান্তদের মধ্যে ৩৯৬ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গিয়েছেন। তবে জেলায় সরকারি ভাবে মৃত্যুর ঘটনা জানানো না হলেও ইতিমধ্যে জেলায় ৬ জনের মৃত্যুর বিষয়টি সামনে এসেছে।

এদিকে নতুন করে জেলায় ৩৩ জন আক্রান্তের মধ্যে জানা গেছে জেলা সদর বালুরঘাটেই সংক্রামিত হয়েছেন ১৭ জন। এছাড়া বালুরঘাট গ্রামীণ এলাকায় ৮, কুশমন্ডিতে ৪ ও হরিরামপুরে ৪ জন সংক্রামিত হয়েছেন।গত ১৯ থেকে ২১ জুলাই আক্রান্তদের থেকে সোয়াব সংগ্রহ করে জেলা স্বাস্থ্য দফতরের তরফে মালদা মেডিক্যাল কলেজের পরীক্ষাগারে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছিল বলে জানা গেছে। আরও জানা গেছে নতুন আক্রান্তদের মধ্যে বালুরঘাট আদালতের পাঁচজন কর্মী সংক্রামিত হয়েছেন। এছাড়া বালুরঘাট শহরের বটকৃষ্ণ পল্লী, পাওয়ারহাউজ, বেলতলা পার্ক, চকভবানী, চকভৃগু, উত্তর চকভবানী, নামাবঙ্গিতে একজন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। মঙ্গলপুরে তিনজন ও নারায়ণপুরে দুজনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। বালুরঘাট ব্লকের পরানপুরে দুজন, বাদামাইল, চিঙ্গিশপুর, গঙ্গাসাগর, কামারপাড়া, মাতৃছাব্রাদুল ও রঘুনাথপুরে একজন করে সংক্রামিত হয়েছেন। হরিরামপুরে বিধায়ক সহ চারজন, কুশমন্ডিতে চারজন সংক্রামিত হয়েছেন।প্রসংগত এর আগেও বালুরঘাট আদালতের মহুরি, কর্মী ও আইনজীবীদের একসাথে ৩৪ জনের শরিরে করোনা পজিটিভের হদিস মিলেছিল। এদিকে আজও যাদের করোনা পজিটিভ এসেছে তাদের কোন পুর্বের বা বর্তমানে ভ্রমন করবার কোন খবর নেই বলে জানা গেছে। জানা গেছে আক্রান্তদের সেফ হাউজ বা কোভিড হাসপাতালে আনার প্রক্রিয়া জেলা স্বাস্থ্য দফতরের উদ্যোগে শুরু হয়েছে।ইতিমধ্যেই সম্ভবত আগামী কাল জেলার বালুরঘাট শহরের পুরনো করোনা হাসপাতাল টিকে সরিয়ে নতুন করে বালুরঘাট শহরের যুব হোস্টেলকে করোনা হাসপাতালে রুপান্তর করার কাজ শেষ হয়েছে। সম্ভবত আগামীকাল তা খুলে দেওয়া হবে।জেলায় দিন দিন করোনা আক্রান্তের হদিস মেলায় পুরনো করোনা হাসপাতালের জায়গার অভাবের দরুন এই প্রশাসনের সক্রমিতদের আর ও ভাল পরিষেবা দেবার জন্য এই নতুন উদ্যোগ বলে জানা গেছে।